মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেসে আগুন: নিহতদের মধ্যে রয়েছেন মা-শিশু

সম্পাদকীয়/
বণিক বার্তা

(২ মাস আগে) ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩, মঙ্গলবার, ১১:১৪ পূর্বাহ্ন

agribarta

রাজধানীতে ট্রেনে দুর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে চার নিহতদের মধ্যে দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন, নাদিয়া আক্তার পপি (৩৫) ও তার ছেলে মোহাম্মদ ইয়াসিন (৩)। অপর দুজনের পরিচয় তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি, তাদের বয়স আনুমানিক ৩০ থেকে ৪৫ বছর।

আজ মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) ভোরে এ আগুনের ঘটনা ঘটে। তেজগাঁও রেল স্টেশন থেকে পুড়ে অঙ্গার হয়ে যাওয়া চারটি মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে রাখা হয়েছে।

নিহত ইয়াসিনের মামা হাবিবুর রহমান হাবিব জানান, তাদের বাড়ি নেত্রকোনার সদর উপজেলার বরুনা গ্রামে। ৩ ডিসেম্বর তারা গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলেন। সেখান থেকে গতকাল সোমবার রাত ১২টার দিকে মোহনগঞ্জ এক্সপ্রেসে রাজধানীর উদ্দেশে রওনা দেন।

ট্রেনে তাদের সঙ্গে ছিল নিহত নাদিয়ার আরেক ছেলে ফাহিম (৮)। হাবিবুর জানান, তেজগাঁও রেল স্টেশনে ট্রেনটি থামলে কিছু যাত্রী নেমে যান। এসময় তাদের পেছনের সিটে থাকা দুই ব্যক্তিও নেমে যান। এরপর পেছনের সিট থেকে আগুন জ্বলে উঠে। মুহূর্তেই আগুন পুরো বগিতে ছড়িয়ে পড়ে। সেখান থেকে দৌড়ে হাবিবুর ও ফাহিমসহ অন্য যাত্রীরা নামতে পারলেও ভেতরে আটকা পড়েন ইয়াসিন ও তার মা নাদিয়া। তাদের কোনোভাবেই বের করা যায়নি। পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিস তাদের মরদেহ উদ্ধার করে।

নিহত নাদিয়ার স্বামী মিজানুর রহমান মিজান কারওয়ান বাজারে একটি হার্ডওয়্যার দোকানে কাজ করেন। তেজগাঁও তেজতুরি বাজার এলাকায় তারা থাকতেন।

এ বিষয়ে ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ চারটি সকালে ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে এসেছে রেলওয়ে থানা পুলিশ। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।