www.agribarta.com:: কৃষকের চোখে বাংলাদেশ

বারি’তে ফসলের ক্ষতিকর পোকামাকড় দমন ব্যবস্থাপনা শীর্ষক প্রশিক্ষণ


 এস এ    ১ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সোমবার, ৬:১৪   কৃষি প্রতিষ্ঠান বিভাগ


বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি)-এর প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং এবং কীটতত্ত্ব বিভাগের যৌথ উদ্যোগে ব্র্যাক কর্মকর্তাদের জন্য 'পরিবেশ সম্মত উপায়ে বিভিন্ন ফসলের ক্ষতিকর পোকামাকড় দমন ব্যবস্থাপনা' শীর্ষক পাঁচ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা। রবিবার (১ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হয়ে আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলমান এই প্রশিক্ষণ কর্মশালায় ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্রাজুয়েশন প্রোগ্রামের কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করবেন।

রবিবার সকালে ইনস্টিটিউটের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থেকে কর্মশালার উদ্বোধন করেন বারি’র মহাপরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলাম।

বারি’র পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ) ড. মুহাম্মদ সামসুল আলমের সভাপতিত্বে কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বারি’র পরিচালক (গবেষণা) ড. মো. মিয়ারুদ্দীন, পরিচালক (সেবা ও সরবরাহ) ড. এস. এম. শরিফুজ্জামান, পরিচালক (পরিকল্পনা ও মূল্যায়ন) ড. মো. কামরুল হাসান, ব্র্যাকের আলট্রা-পুওর গ্রাজুয়েশন প্রোগ্রামের সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার এস এম মাহমুদুজ্জামান। কীটতত্ত্ব বিভাগের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আখতারুজ্জামান সরকার, কীটতত্ত্ব বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও প্রধান ড. নির্মল কুমার দত্ত।

প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনকালে বারি’র মহাপরিচালক ড. মো. নাজিরুল ইসলাম বলেন, দেশে ফসলের পোকা-মাকড় রোধের নামে রাসায়নিক কীটনাশকের অপব্যবহার হচ্ছে। মুজিববর্ষে আমাদের লক্ষ্য সকলের জন্য খাদ্য নিরাপত্তার পাশাপাশি নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করা। আর এ জন্য প্রয়োজন রাসায়নিক কীটনাশকের বিকল্প পদ্ধতি উদ্ভাবন। ইতিমধ্যে বারি’র কীটতত্ত্ব বিভাগের বিজ্ঞানীরা রাসায়নিক কীটনাশকের বিকল্প হিসেবে বিভিন্ন ধরনের জৈব বালাইনাশক পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছে। আমাদের আশা ব্র্যাক সরকারের উন্নয়ন সহযোগীর অন্যতম অংশ হিসেবে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতে সচেতনতা বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।




  এ বিভাগের অন্যান্য