www.agribarta.com:: কৃষকের চোখে বাংলাদেশ

১২ মে পর্যন্ত এলসি আছে এমন গম আসবে ভারত থেকে


 এগ্রিবার্তা ডেস্ক    ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার, ৯:৩২   কৃষি অর্থনীতি  বিভাগ


তীব্র দাবদাহে উৎপাদন কমায় স্থানীয় বাজারে সরবরাহ ও বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে রফতানি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ভারত। গত শুক্রবার এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার পর থেকে দেশটি নতুন করে কোনো গমের এলসিও নিচ্ছে না। তবে গতকাল দুপুরের পর থেকে পুরনো এলসির বিপরীতে টেন্ডারকৃত গম রফতানি শুরু করেছে । আজ রোববার বৌদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে।

হিলি স্থলবন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট রাশেদুল ইসলাম বলেন, গত শুক্রবার ভারত সরকার গম রফতানি বন্ধের নির্দেশনা দেয়ার পর শনিবার সকাল থেকেই রফতানি বন্ধ রেখেছিল ভারতীয় কাস্টমস। পরে শুধুমাত্র যেসব এলসির বিপরীতে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হয়েছে, সেগুলো রফতানির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ কারণে শনিবার দুপুরের পর থেকে বন্দর দিয়ে পুনরায় গম আমদানি শুরু হয়। সেই সঙ্গে ১২ মে পর্যন্ত যেসব গমের এলসি হয়েছে সেগুলোর বিপরীতে গম রফতানি করা হবে বলে জানিয়েছেন ভারতীয় ব্যবসায়ীরা। তবে তারা নতুন করে কোনও এলসি গ্রহণ করা হবে না।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক দয়াল মোল্লা বলেন, দেশের চাহিদা মেটাতে আমরা ভারত থেকে গম আনি। এগুলো বিভিন্ন ফ্লাওয়ার মিলে সরবরাহ করা হয়। কিন্তু শনিবার সকালে ভারতীয় রফতানিকারকরা জানান, ভারত সরকার গম রফতানি বন্ধ করে দিয়েছেন। আমাদের বেশকিছু গমের এলসি ভারতে দেওয়া রয়েছে। তাই বাণিজ্য মন্ত্রণালয় যেন তাদের দেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে, এলসি দেওয়া গম আনার ব্যবস্থা করে, সেই দাবি জানাচ্ছি। বন্দরের ১৫ থেকে ১৬জন আমদানিকারকের প্রায় ৭০হাজার টনের মত গমের এলসি ভারতে দেয়া রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন জানান, বন্দর দিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই গম আমদানি অব্যাহত রয়েছে। গড়ে প্রতিদিন ৫০-৬০ ট্রাক গম আমদানি হতো। গত বৃহস্পতিবার ৫২টি ট্রাকে এক হাজার ৯৫৯ টন আমদানি হয়েছে। শনিবার দুপুর পর্যন্ত কোনও গম আমদানি হয়নি, তবে দুপুরের পর থেকে আবারও আমদানি শুরু হয়। গতকাল একদিনেই ৫০টি ট্রাকে এক হাজার ৯২৩ টন গম আমদানি হয়েছে। তবে রোববার বৌদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে।




  এ বিভাগের অন্যান্য