www.agribarta.com:: কৃষকের চোখে বাংলাদেশ

সচিবালয়ে কৃষিমন্ত্রী

বন্যায় ৫৬ হাজার হেক্টর জমির আউশ ধান ক্ষতিগ্রস্ত


 এগ্রিবার্তা ডেস্ক    ২২ জুন ২০২২, বুধবার, ৮:৪০   সমকালীন কৃষি  বিভাগ


সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের আট জেলাসহ বন্যাকবলিত বিভিন্ন জেলায় প্রায় ৫৬ হাজার হেক্টর জমির আউশ ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মাঠে বড় ধরনের ফসলের আবাদ বর্তমানে না থাকলেও বন্যায় ক্ষতির পরিমাণ কম নয় বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আবদুর রাজ্জাক। গতকাল সচিবালয়ে মালদ্বীপের হাইকমিশনার শিরুজিমাথ সামীর সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

কৃষিমন্ত্রী জানান, এখন মাঠে বড় ধরনের কোনো ফসল নেই। তার পরও চলমান বন্যায় সুনামগঞ্জ ও সিলেটে ২২ হাজার হেক্টর জমির আউশ ধান আক্রান্ত হয়েছে। কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, নীলফামারী, মৌলভীবাজারসহ অনেক জেলা এখন বন্যাকবলিত হতে শুরু করেছে। বন্যার কারণে এ পর্যন্ত সারা দেশে প্রায় ৫৬ হাজার হেক্টর জমির আউশ ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া সবজি, তিল, বাদাম প্রভৃতি ফসলের ক্ষতি হয়েছে। বন্যা দীর্ঘস্থায়ী না হলে এখন পর্যন্ত যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব। ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে এরই মধ্যে প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

আমন ধানের উৎপাদন যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেদিকে গুরুত্ব দিয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশে আমন বড় ফসল। বছরে ১ কোটি ৫০ লাখ টনের মতো আমন চাল উৎপাদন হয়। এখন রোপা আমনের বীজতলা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। বন্যা আর না বাড়লে বীজতলা তেমন ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। তবে বন্যা দীর্ঘস্থায়ী হলে বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

আবদুর রাজ্জাক বলেন, সব পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি। বন্যার কারণে যদি আমন ক্ষতিগ্রস্ত হয় বা চাষ করা না যায়, তাহলে রবি মৌসুমে ফসলের উৎপাদন বাড়াতে হবে। ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্য কৃষকদের বীজ, সেচ ব্যবস্থা ও সারসহ বিভিন্ন উপকরণ বিনামূল্যে দেয়া হবে। বন্যার কারণে শাকসবজির দামে প্রভাব পড়তে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বন্যার কারণে দেশে খাদ্য সংকট হবে কিনা তা এখনই বলা যাচ্ছে না।




  এ বিভাগের অন্যান্য