www.agribarta.com:: কৃষকের চোখে বাংলাদেশ

সংকটে শ্রীলঙ্কা

কৃষি কাজ করতে সরকারি কর্মকর্তাদের বাড়তি ছুটি


 এগ্রিবার্তা ডেস্ক    ২২ জুন ২০২২, বুধবার, ৮:৫২   কৃষি অর্থনীতি  বিভাগ


ঋণসংকটে জর্জরিত শ্রীলঙ্কা এখন খাদ্য ঘাটতির শঙ্কায় আছে। পরিস্থিতি এতটা গুরুতর পর্যায়ে চলে গেছে যে দেশটির সরকারি কর্মকর্তাদের খাদ্য উৎপাদনে উৎসাহিত করতে সপ্তাহে অতিরিক্ত এক দিন ছুটি দেওয়া হচ্ছে।

খাদ্য উৎপাদনের সংকটের পাশাপাশি খাদ্য আমদানি করতে গিয়েও বিপাকে পড়েছে শ্রীলঙ্কা। বৈদেশিক মুদ্রার সংকট থাকায় প্রয়োজনীয় খাদ্য আমদানিতেও লাগাম টানতে হচ্ছে তাদের। আর এই পরিপ্রেক্ষিতে তারা এই নীত গ্রহণ করেছে।

গত সোমবার সরকার আগামী তিন মাসের জন্য সরকারি কর্মকর্তাদের শুক্রবারও ছুটি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

এই সিদ্ধান্তের পেছনে আরও কিছু বিবেচনা কাজ করেছে বলে বিবিসির সংবাদে জানা গেছে। বলা হয়েছে, জ্বালানিসংকটের কারণে কার্যালয়ে আসা-যাওয়া করতেও সমস্যায় পড়তে হয় সরকারি কর্মকর্তাদের। সে জন্য তাঁদের সপ্তাহে অতিরিক্ত এক দিন ছুটি দেওয়া হচ্ছে। এতে তাঁদের আসা-যাওয়ার ঝামেলা কমবে, আবার অতিরিক্ত ছুটির দিনে তারা শাকসবজি ও ফলমূল উৎপাদন করে পরিবারের খাদ্যের সংস্থান করতে পারবে।

সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সরকারি কর্মকর্তাদের এভাবে এক দিন বাড়তি ছুটি দেওয়া যথাযথ মনে হয়েছে আমাদের কাছে। দেশে খাদ্যসংকট চলছে। এই সময় তাঁরা বাড়ির পেছনে বা আশপাশে শাকসবজি বা ফলমূল উৎপাদন করেন, তাহলে তাঁরা পরিবারের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারবেন। সে জন্য তাঁদের প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়া হবে।’

এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, তারা শ্রীলঙ্কাকে সহায়তা করতে প্রস্তুত। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনীল বিক্রমাসিংহের সঙ্গে সম্প্রতি এ নিয়ে আলোচনাও করেছেন।

এদিকে জুনের শুরুতে রনিল বিক্রমাসিংহে বলেছিলেন, এ বছর শুধু খাদ্য আমদানির জন্য শ্রীলঙ্কার ৫০০ কোটি ডলার প্রয়োজন।

বিদেশি মুদ্রার সংকট, ক্রমবর্ধমান বৈশ্বিক মূল্যস্ফীতি, রাসায়নিক সার আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা—এসব কারণে এপ্রিল মাসে শ্রীলঙ্কার খাদ্য মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫৭।

জরুরি সহায়তার জন্য শ্রীলঙ্কা একদফা আইএমএফের সঙ্গে আলোচনা করেছিল। কিন্তু সে আলোচনা ফলপ্রসূ না হলেও আবারও তারা আইএমএফের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে। আগামী সোমবার আইএমএফের প্রতিনিধিরা শ্রীলঙ্কা সফরে আসবেন।

গত মাসের শেষ দিকে শ্রীলঙ্কার কৃষিমন্ত্রী মাহিন্দা অমরাভীরা কৃষকদের প্রতি উৎপাদন বৃদ্ধির আহ্বান জানান। বলেন, খাদ্য পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি হচ্ছে। সে জন্য তিনি অনুরোধ করেন, পাঁচ থেকে ১০ দিনের মধ্যে কৃষকেরা যেন ধান উৎপাদন শুরু করে।




  এ বিভাগের অন্যান্য