www.agribarta.com:: কৃষকের চোখে বাংলাদেশ

কাহালুতে অনুমোদনহীন জিংক কারখানা সিলগালা


 এগ্রিবার্তা ডেস্ক    ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, বুধবার, ৭:৫৭   সমকালীন কৃষি  বিভাগ


বগুড়ার কাহালু উপজেলায় অনুমোদন না নিয়ে জিংক সার কারখানা পরিচালনা করার অভিযোগে কারখানার মালিককে সাড়ে চার লাখ টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ মঙ্গলবার বিকেলে বগুড়ার কাহালু উপজেলার বৌবাজার এলাকায় ওই অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত বগুড়ার কাহালু উপজেলার বৌবাজার (নিশ্চিন্তপুর চান্দইর) এলাকায় আনিকা অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ নামের ওই কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালত এ অভিযান পরিচালনা করেন। রাষ্ট্রীয় একটি গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তাদের সঙ্গে নিয়ে করা এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন বগুড়া জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল নাঈম। এ সময় ম্যাগনেশিয়াম সালফেটের ৫০ কেজি ওজনের ১৮৯ ও ২৫ কেজির ১ হাজার ৬২০ বস্তা এবং বিপুল পরিমাণ জিংক সার জব্দ করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জান যায়, কাহালু উপজেলায় আনিকা অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ নামে অনুমোদনহীন ওই কারখানায় দীর্ঘদিন ধরে কয়েক ধরনের জিংক সার উৎপাদন করে আসছিলেন ঝিনাইদহ জেলার জাকির হোসেন নামের এক ব্যক্তি। বর্তমানে তিনি বগুড়ায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করছেন। জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) তথ্যের ভিত্তিতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে সংস্থাটির কর্মকর্তারা ছাড়াও কাহালু উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রাকিব হাসান এবং পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা বিএসটিআইয়ের কর্মকর্তা জুনায়েদ আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

ওই অভিযান সম্পর্কে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল নাঈম মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, আনিকা অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজের সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে অনুমোদনহীন ওই কারখানায় কয়েক ধরনের জিংক সার উৎপাদন করে তা নামীদামি কোম্পানির মোড়কে ভরে বাজারজাত হয়ে আসছিল। অনুমোদন ছাড়া সার কিংবা কাঁচামাল সংরক্ষণ, পরিবহন ও উৎপাদন করা আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ। অভিযানের সময় কারখানার মালিক জাকির হোসেনকে পাওয়া যায়নি। তাঁর পক্ষে কারখানার ব্যবস্থাপক রাকিবুল হাসান জরিমানার অর্থ শোধ করেন। পরে কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।




  এ বিভাগের অন্যান্য