www.agribarta.com:: কৃষকের চোখে বাংলাদেশ

দেশীয় প্রজাতির ৬৪ মাছ বিলুপ্ত


 এগ্রিবার্তা ডেস্ক    ৪ নভেম্বর ২০২২, শুক্রবার, ৬:১৬   মৎস্য  বিভাগ


বিলুপ্ত হওয়া দেশীয় প্রজাতির মাছের সংখ্যা প্রায় ৬৪টি। এসব মাছ রক্ষায় সরকার নানা পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) জাতীয় সংসদে নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়নের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান তিনি। আরেক সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, সারাদেশে খামারের সংখ্যা ১৩ লাখ ৩৮ হাজার ৫৯০টি। এর মধ্যে গাভির খামার দুই লাখ ৭০ হাজার ২৯০, ছাগল-ভেড়ার খামার আট লাখ ৭৩ হাজার ২০০ এবং পোল্ট্রি খামার এক লাখ ৯৫ হাজার ১০০টি। সরকারি দলের মোরশেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে শ ম রেজাউল করিম বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে উষ্ণতা, সমুদ্রের পানির উচ্চতা এবং লবণাক্ততার বৃদ্ধির ফলে উপকূলীয় মৎস্য সম্পদের ওপর ক্রমশ নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে। এছাড়া নদীগুলোতে লবণাক্ত পানি অনুপ্রবেশের ফলে মিঠা পানির মাছ ও প্রাথমিক উৎপাদনশীলতায় পরিবর্তন ঘটছে। উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণে মাছের আবাসস্থল, বিচরণক্ষেত্র, অভিপ্রায়ণ ও প্রজনন হচ্ছে প্রভাবিত।

জলবায়ুর ধারাবাহিক অবনতির কারণে মৎস্য সম্পদের ওপর নানা বিরূপ প্রভাব পড়ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, মাছের অনেক আচরণগত বৈশিষ্ট্য পরিবর্তিত হচ্ছে। মারাত্মকভাবে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন। নেতিবাচক প্রভাব পড়ছে মাছের প্রজাতি-বৈচিত্র্যেও।

এছাড়া তাপমাত্রা বৃদ্ধি, অনাবৃষ্টি ও অপর্যাপ্ত বৃষ্টির ফলে মাছের প্রাকৃতিক আবাসস্থল, প্রজননক্ষেত্র ও লালনক্ষেত্র কমছে বলে জানান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী।

তিনি জানান, আবাদি পুকুরের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। বাৎসরিক পুকুরগুলো মৌসুমি পুকুরে রূপান্তরিত হচ্ছে।




  এ বিভাগের অন্যান্য